শাক সবজির প্রকারভেদ

আজকাল শাক সবজি খাওয়ার প্রতি জোর দিচ্ছেন সবাই।আমাদের দেশে বিভিন্ন মৌসুমে বিভিন্ন রকমের শাক সবজি পাওয়া যায়। তাই দৈনিক মেনুতে সবজির বিভিন্ন আইটেম রাখা খুব কঠিন ব্যাপার না। তবে বেশির ভাগ লোকই প্রতিদিন শাক বা সবজির যে কোন ১টি আইটেম খেয়ে থাকেন, যা সঠিক অভ্যাস নয়।

শাক সবজির ভিতরও ভাগ আছে , যেমন –
১.Protective Foods Vegetable & fruits
২.Other Vegetable & fruits Roots and tubers

১.Protective Foods Vegetable & fruits

এর মধ্যে রয়েছে-
*গাঢ় সবুজ শাক এবং হলুদ, কমলা রঙের ফল ও সবজি।
দৈনিক মেনুতে আধা কাপ রান্না করা শাক রাখতে হবে । এর সাথে থাকবে আধা কাপ গাজর কুচি বা আম ছোট হলে ১টি । (১ পরিবেশন = ৫০-৭৫ গ্রাম. ১-২ পরিবেশন রাখতে হবে দৈনিক খাবারে)
এ গ্রুপের খাবার গুলো ভিটামিন -এ ‘র ভাল উৎস। আরও পাওয়া যায় আয়রন,আশ,অন্যান্য ভিটামিন ও মিনারেলস সামান্য পরিমানে।

*ভিটামিন -সি যুক্ত ফল ও সবজি: এ ধরনের খাবার রাখতে হবে ৫০-৭৫ গ্রাম।যেমন- ১-২ টুকরা পাকা পেপে অথবা ১ টি কমলা অথবা মাঝারী আকারের ১টি টমেটো।(১ পরিবেশন = ৫০-৭৫ গ্রাম. ১-২ পরিবেশন রাখতে হবে দৈনিক খাবারে)

২.Other Vegetable & fruits Roots and tubers

এ গ্রুপের ভিতর আছে ঢেড়স, বেগুন, আলু,কচু, কলা, নাশপতি ইত্যাদি।
এগুলো ৫০-৭৫ গ্রাম দৈনিক মেনুতে রাখতে হবে।(১ পরিবেশন = ৫০-৭৫ গ্রাম. ১-২ পরিবেশন রাখতে হবে দৈনিক খাবারে)
এগুলোতে কার্বোহাইড্রেট থাকে বেশ ভাল পরিমানে, এর সাথে ভিটামিন, মিনারেরস, আশ পাওয়া যায়।

এই তিন ধরনের শাক ও সবজি আমাদের প্রতিদিনের খাবার তালিকায় রাখতে হবে।মনে রাখতে হবে ১ গ্রুপের খাবারের পুষ্টি  অন্য গ্রুপ পূরণ করতে পারে না।

শাক সবজি খাওয়ার উপকারিতা
*স্থুলতা রোধে সহায়ক,
*কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে
*রক্তের গ্লুকোজ লেভেল ঠিক রাখতে সহায়তা করে
*রক্তের কোলেষ্টেরল লেভেল কমায়
*ত্বক ও চুলের জন্য সব রকমের পুষ্টি উপাদান সরবরাহ করে

Please Share:

Related posts

Leave a Comment