সৌন্দর্য চর্চার প্রথম শর্তই ফিটনেস্ – উম্মে সালমা উর্মী

সৌন্দর্য চর্চার প্রথম শর্তই ফিটনেস্

               – উম্মে সালমা উর্মী

স্বাস্থ্য বাংলার সাথে একান্ত সাক্ষাৎকারে দেশের  মেধাবী ও প্রতিশ্রুতিশীল ফিটনেস্  কন্সাল্ট্যান্ট।   

উম্মে সালমা উর্মী পেশায়  একজন  ফিটনেস কন্সালট্যান্ট ও ফিজিও। এদেশের স্বাস্থ্যসেবা সেক্টরের  একটি উল্লেখযোগ্য নাম ‘আইএনডিআর’- শিশু, নারী তথা সিনিয়র সিটিজেনদের জন্য গৃহীত নিত্য নতুন নানা কার্যকরী  ওয়েলনেস্ প্রোগ্রামের জন্য যারা ইতোমধ্যেই সুনাম অর্জন করেছে, উম্মে সালমা  এই ‘আইএনডিআর’ এর P4HW (ফিজিও ফর হেলথ এন্ড ফিটনেস) কর্মসূচীর পরিচালিকা হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। স্বাস্থ্যবাংলার মুখোমুখি হয়ে তিনি   সৌন্দর্য বা রূপচর্চা, ফ্যাটলস্ ও স্লিমিং, খাদ্যাভ্যাস, লাইফস্টাইল ইত্যাদি বিষয়ে তাঁর অভিমত ও উপদেশনা দিয়েছেন। আর এসব নিয়েই  স্বাস্থ্য বাংলার এবারের আয়োজন।    

স্বাস্থ্যবাংলাঃ ম্যাডাম স্বাস্থ্যবাংলার পক্ষ থেকে আপনাকে স্বাগত জানাই। এই স্বল্প পরিসরে আমরা আজ আর আপনার শৈশব, কৈশোর ইত্যাদি বিষয়ে যাবো না, বরং আপনার লেখাপড়া, গৌরবোজ্জ্বল পেশাগত জীবন এসব নিয়েই আমাদের পাঠকগণ জানতে অধিক আগ্রহী। আপনার পড়াশোনার বিষয় যদি আমাদের বলেন।

উম্মে সালমা উর্মীঃ ধন্যবাদ।  ঢাকার রাজউক উত্তরা মডেল স্কুল ও কলেজ থেকে আমার স্কুল ও কলেজ জীবন শেষ করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তর্গত  ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অব ট্রমাটোলজী এন্ড অর্থোপেডিক রিহ্যাবিলিটেশন ((NITOR)  থেকে বিএসসি ইন ফিজিওথেরাপি সম্পন্ন করি অতঃপর নর্থসাউথ ইউনিভার্সিটি থেকে এমপিএইচ অর্থাৎ মাস্টার্স ইন পাবলিক হেলথ ডিগ্রী নেই।

স্বাস্থ্যবাংলাঃ আপনার কর্মজীবন সম্পর্কে  কিছুটা আলোকপাত করুন

উম্মে সালমা উর্মীঃ বর্তমান কাজে যোগ দেবার আগে আমি ক্লিনিক্যাল ফিজিওথেরাপিস্ট হিসেবে ঢাকার  আসগর আলী হাসপাতালে কর্মরত ছিলাম। এর আগে আমেরিকান সুপার স্পেশালিটি হাসপাতাল, বাংলাদেশ ফিজিওথেরাপি হাসপাতাল গুলশান, চিটাগাং পেইন ফিজিওথেরাপি এন্ড  রিহ্যাবিলিটেশন সেন্টারসহ স্বাস্থ্য সেবা সেক্টরের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে ফিজিও হিসেবে  কাজ করেছি।

স্বাস্থ্যবাংলাঃ স্বাস্থ্য সেক্টর সংশ্লিষ্ট আমরা অনেকেই জানি, আপনি জেনারেল  ক্লিনিক্যাল ফিজিও হিসেবে সফলভাবে কাজের পাশাপাশি অটিজম বা স্পেশাল চাইল্ড, স্পীচ থেরাপি, স্ট্রোক রিহ্যাবিলিটেশন এমন সব বিশেষায়িত স্বাস্থ্যসেবা সেক্টরেও দারুণভাবে সফলতা পেয়েছেন। আমাদের বলবেন কি, এতো কিছুর পরও আপনি হেলথ ও  ফিটনেস্ বিষয়ে কেনো এতো ব্যাপকভাবে কাজ করতে আগ্রহী হলেন, যা অতি  অল্প সময়ের মাঝেই আপনাকে একজন  প্রত্রিশ্রুতিশীল ফিটনেস কন্সাল্ট্যান্ট হিসেবে সুপরিচিত করে তুলেছে?

উম্মে সালমা উর্মীঃ আপনাকে  অনেক ধন্যবাদ এমন একটি বিষয়ে জানতে চাওয়ার জন্য। সত্যি বলতে কি, আমার এক পিতৃব্য যিনি আমেরিকায় শিশু বিশেষজ্ঞ হিসেবে কর্মরত আছেন,  ফিজিওথেরাপি বিষয়ে লেখাপড়া করতে প্রথমত তিনিই ছিলেন আমার অনুপ্রেরণা। অতঃপর লেখাপড়া শেষে পঙ্গু হাসপাতালে  ইন্টার্নশীপ  করার সময় ও পরবর্তীতে যখন হাতে কলমে কাজ করতে গেলাম তখন উপলব্ধি করতে পারলাম, মানুষের স্বাস্থ্য বিষয়ে একটু সচেতনতা, একটু ফিটনেস্ জ্ঞান তাকে অনেকটাই ভালো রাখতে পারে। সেই সুপ্ত উপলব্ধিটুকু পরিপূর্ণভাবে বিকশিত হলো ‘আইএনডিআর’ এর P4HW (ফিজিও ফর হেলথ এন্ড ফিটনেস) কর্মসূচীতে যোগ দেবার পর। ‘আইএনডিআর’ এর প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক এবং বাংলাদেশ স্ট্রোক এসোসিয়েশনের সেক্রেটারী বিশিষ্ট নিউরো রিহ্যাব স্পেশালিস্ট ডাঃ ওসমান গনি’র নানামুখী অভূতপূর্ব ওয়েলনেস্ কর্মসূচী আমাকে দারুণভাবে অনুপ্রাণিত করেছে  ফিটনেস্  কন্সাল্ট্যান্ট  হিসেবে নিজেকে সম্পূর্ণভাবে নিয়োজিত করার ক্ষেত্রে।   

স্বাস্থ্যবাংলাঃ  ফ্যাটলস বা স্লিমিং এর প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে কিছু বলুন।

উম্মে সালমা উর্মীঃ দেখুন, আমি মনে করি সৌন্দর্য চর্চার প্রথম শর্তই ফিটনেস্। এক্ষেত্রে দেহ সৌষ্ঠব্য  অতি গুরুত্বপূর্ণ। গায়ের রঙ  বা চেহারার মাধুর্যতা সব কিছুই ম্লান হয়ে যায় যদিবা  রোগ-ব্যধিমুক্ত আকর্ষণীয় ফিগারের অধিকারী কেউ না হন। বাড়তি  মেদ নানা রোগব্যধির জন্ম দিয়ে থাকে। মেয়েদের ইনফার্টিলিটি সমস্যা বা বন্ধ্যাত্ব’র জন্যও দায়ী এই স্থূলতা।     

স্বাস্থ্যবাংলাঃ  ধন্যবাদ ম্যাডাম, আপনাদের  P4HW ফ্যাটলস বা স্লিমিং মেথডটি ঠিক কি বা স্লিমিং ক্ষেত্রে তা কিভাবে কাজ করে?

 উম্মে সালমা উর্মীঃ আপনি জানেন উন্নত বিশ্বে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াহীন স্লিমিং পদ্ধতি নিয়ে চলছে নানা গবেষণা। আবিষ্কৃত হয়েছে বেশ কয়েকটি ‘কম্বাইন্ড স্মিলিং মেথড’। P4HW ফ্যাটলস বা স্লিমিং মেথডটি ঠিক এমনি একটা ‘কম্বাইন্ড স্মিলিং মেথড যা শরীরের প্রয়োজনীয় পুষ্টি’র দিকে নজর রেখে স্বল্প সময়ের কিছু থেরাপিউটিক শারীরিক এক্সারসাইজ আর সেইসাথে প্রযুক্তি নির্ভর কিছু বিশেষায়িত পদ্ধতির সমন্বয়ে গঠিত। আমাদের এই ‘স্লিমিং মেথড’ অনুযায়ী, যিনি ওজন কমাতে চান, প্রথমে তাঁর  ইচ্ছে ও চাহিদামতো বডি ম্যাপিং  করে নিয়ে দেহের যেসব জায়গায় মেদ বেশি, সেসব অবাঞ্চিত মেদ লেজার লাইপোলাইসিস পদ্ধতির মাধ্যমে ঝড়িয়ে নেওয়া হয়। সেই সাথে আল্ট্রাসোনিক ফ্যাট লস থেরাপী, রেডিও ফ্রিকোয়েন্সি বডি টোনিং থেরাপি, ইএমএস স্টিমুলেশন, থেরাপিউটিক এক্সারসাইজ প্রোগ্রাম ও নিউট্রিশনাল অ্যাডভাইসের সমন্বয়ে সংলিষ্ট এক্সপার্টের তত্ত্বাবধানে ফিগারকে আকর্ষণীয় ভাবে গড়ে তোলা হয়।

স্বাস্থ্যবাংলাঃ আপনাদের এই পদ্ধতিটি আসলে কতটুকু কার্যকর? আর এই সফলতার রহস্যটাই বা কি?  

উম্মে সালমা উর্মীঃ  ধন্যবাদ, কতটুকু কার্যকর? (স্মিত হেসে) আপনি নিশ্চয় আমাদের এই পদ্ধতিটি’র জনপ্রিয়তা দেখেই বুঝতে পারছেন।  এক মাসেই  ৫ কেজি ওজন কমিয়ে দেবার ইচ্ছে  আমাদের নেই – তবে প্রয়োজনে এর চেয়ে বেশী ওজনও আমরা কমিয়ে দিতে পারি। প্রকৃতপক্ষে আমরা ক্লায়েন্টের শারীরিক, মানসিক, আবেগিক ও অর্থনৈতিক বিষয় গুলোকে প্রাধান্য দিয়ে  প্রত্যকের জন্য স্বতন্ত্র ও সম্ভাব্য স্বল্পতম সময়ের জন্য কাষ্টমাইজড প্রোগ্রাম প্লানিং করি। অন্যদিকে এর কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই। নেই  ডায়েটিং, রেগুলার এক্সারসাইজ, জিমে  যাওয়া এমন সব নানা ঝক্কি ঝামেলা। আর এসবি আমাদের সফলতার রহস্য।

স্বাস্থ্যবাংলাঃ যারা ফ্যাটলস বা স্লিম হতে চান তাদের উদ্দেশ্যে কিছু বলুন

উম্মে সালমা উর্মীঃ  ওজন কমানো কিন্তু একেবারে কঠিন কিছু নয়। সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞের তত্ত্বাবধানে একটু হিসেব করে, সামান্য কিছু নিয়ম মেনে চলা, আর কিছু ভালো খাদ্যাভ্যাস  তৈরি করা। ব্যস, হয়ে গেলো। তবে বলবো ওজন বাড়িয়ে কমানোর ভাবনা না করে বরং নিজের কাঙ্খিত ওজনটি ধরে রাখার চেষ্টা করাই উত্তম। আর এ বিষয়েও আমরা গাইডেন্স দিয়ে থাকি।  

স্বাস্থ্যবাংলাঃ  আপনি দেশে বিদেশে নানা পেশাগত ট্রেনিং নিয়েছেন,  সংশ্লিষ্ট নানা সেমিনার ওয়ার্কশপ ইত্যাদিতে যোগ দিয়েছেন, সম্প্রতি শোনা যাচ্ছে ভারতের নানা ফিটনেস সেন্টার থেকে আপনাকে  কাজ করার জন্য আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে, এ বিষয়ে বলবেন কিছু আমাদের?

উম্মে সালমা উর্মীঃ  (হাসতে হাসতে) বিষয়টি ঠিক যে ওরকম তা নয়, আসলে হেলথ –ফিটনেস, বিউটিফিকেশন, লাইফ স্টাইল এসব বিষয়ে দুই বাংলার ভাববিনিময়, অভিজ্ঞতা বিনিময় ও ফিটনেস বিষয়ে টেকনোলজি ট্রান্সফার ইত্যাদি ক্ষেত্রে  একসাথে কাজ করার জন্য আমাদের এই প্রতিষ্ঠান দুই বাংলার ফিটনেস, বিউটিফিকেশন, লাইফ স্টাইল সেতুবন্ধন গড়ে তোলার লক্ষ্যে ‘নন্দিতা’ নামে একটি  অনলাইন লাইফ স্টাইল  ম্যাগাজিন প্রকাশ করতে যাচ্ছে, আর তারই অংশ হিসেবে ভারতের কোলকাতা ও মুম্বাই’এর আধুনিক দুটি ফিটনেস সেন্টার থেকে তাদের সাথে নলেজ শেয়ারিং এর আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। একেবারে নয়, হয়তো ফুসরত করে এক সময় যাওয়া হবে। পাকাপাকিভাবে দেশেই থাকতে চাই, দেশের মানুষেরই সেবা করতে চাই।

 স্বাস্থ্যবাংলাঃ  কোন ভবিষ্যৎ ইচ্ছে বা পরিকল্পনা?

উম্মে সালমা উর্মীঃ  এসবের পাশাপাশি কর্পোরেট ওয়ার্কপ্লেস ওয়েলনেস নিয়ে কিছু কাজ করতে চাই           

স্বাস্থ্যবাংলাঃ  অনেক ধন্যবাদ ম্যাডাম, ব্যস্ততার মাঝেও আমাদের সময় দেবার জন্য।

উম্মে সালমা উর্মীঃ  ধন্যবাদ আপনাকে। ধন্যবাদ স্বাস্থ্য বাংলা টিম কে ।   

সাক্ষাৎকার নিয়েছেনঃ রফিক – উল – আলম

 

 

Please Share:

Related posts

Leave a Comment