সারাদিনের কোন খাবারটি সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ ?

আপনি কি জানেন যে আপনার সারা দিনের কোন খাবার টি সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ ? সকালের নাস্তা সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ খাবার| অনেকেই সকালের নাস্তা না করে বাসা থেকে বের হন, তারপর দুপুরে অনেক বেশি খান| সকালের নাস্তা না করার পেছনে যে অজুহাত তারা দেন তাহলো: সময় নেই, নাস্তা বানাতে কষ্ট লাগে, নাস্তা না খেলে ওজন কমবে ইত্যাদি | এতে করে ওজন তো কমেই না বরং বেড়ে যায় |

সকালের নাস্তা করার উপকারিতা :

  • যারা সকালের নাস্তা করেন, তারা সারাদিনের এক তৃতীয় অংশ ক্যালরি খান| যা সারাদিনে পরের খাবার গুলো কম খেতে সাহায্য করে |
  • সকালের নাস্তা ভালো মত করলে সারাদিন কম খাওয়া হয়| কারণ নাস্তা খাওয়ার ফলে পেট ভরা লাগে, পরবর্তীতে কম খাওয়া হয়, ফলে ওজন নিয়ন্ত্রণে থাকে|
  • গবেষণা করে পাওয়া গেছে সকালের নাস্তা যারা খান, তাদের ওজনও কমে ঠিক মত| Journal of the American Dietetic Association এর মতে ওজন কমাতে সকালের নাস্তা সাহায্য করে |
  • এটা মেটাবলিসম শুরু করতে ও বাড়াতেও সহায়তা করে | কারণ সকালের নাস্তা পেটে যাবার মাধ্যমেই আপনার হজম প্রক্রিয়া শুরু হয় |
  • lifehacker.comDr. Nerina Ramlakhan বলেছেন : সকালের নাস্তা সময় মত করলে শরীর কে তার খাবার সময় মত দেয়া হয়, ফলে সারাদিন সব খাবার ঠিক সময় খেলে, রাতে ভালো ঘুম হয়|
  • সকালের নাস্তা না করলে সারাদিন একটি খাই খাই ভাব থাকে| ফলে দিনের পরবর্তী খাবার গুলো বেশি পরিমানে ও বেশি ক্যালরি, চিনি ও ফ্যাট যুক্ত খাবার খেতে ইচ্ছা করে| অধিক পরিমানে ও অধিক ক্যালরি ও ফ্যাট যুক্ত খাদ্য খাবার ফলে ওজন বেড়ে যেতে পারে|
  • তাছাড়া সকালে খেলে সারাদিন কাজের শক্তি ও পুষ্টি পাওয়া যায়| সারাদিনের কাজেও মনোজাগ আসে যদি সকালের নাস্তা ঠিক মত করা হয়, মন মেজাজ ও ঠিক থাকে|
  • তাছাড়া অনেক্ষণ না খেয়ে থাকলে gastric হতে পারে | যার জন্য আপনি হয়ত সারা জীবন ভুগবেন|
  • তাছাড়া সকালের নাস্তা করলে সারাদিন শক্তি পাওয়া যায়, তাই যারা বিকালে বা সন্ধ্যায় শরীরচর্চা করেন, তারা ঠিক মত শরীরচর্চা করতে পারেন
  • রিসার্চ করে পাওয়া গেছে যে সকালের নাস্তা না করলে ব্রেইনের কর্মক্ষমতা ধীরে ধীরে নষ্ট হয়ে যায়| সব বয়সের সবার জন্যেই সকালের নাস্তা দরকারী| কারণ সারা রাত অনেক্ষণ না খেয়ে থাকার ফলে আমাদের শরীরে রক্তের গ্লুকোস কমে যায়,ফলে শরীরের শক্তি কম অনুভব হয় | নাস্তা করলে সেই শক্তি আবার ফিরে আসে|
  • স্বাস্থ্য সম্মত জীবন যাপনের একটি গুরত্ব্য পূর্ণ অংশ হলো সকালের নাস্তা করা |

সুতরাং, সারাদিনের অন্য খাবারের মধ্যে সকালের নাস্তাটি সবচেয়ে ভালো মত করলেই সবচেয়ে লাভ পাওয়া যায় |আপনার সকালের নাস্তা ৮ টার মধ্যে খাবেন |অনেকে  দেরী করে, যেমন ১০/১১ তে নাস্তা করেন, এটা কোনো স্বাস্থ্য সম্মত জীবন নয়|
কিন্তু আবার মনে করবেন না যে, সকালের নাস্তা বেশি বেশি করে খেয়ে সারাদিন কম খাবেন | সারাদিনের প্রতিটি খাবার খাবেন পরিমিত পরিমানে |
কম ক্যালরি যুক্ত খাবার খাবেন সকালের নাস্তায় | যেমন: লাল আটার রুটি,সবজি,ফল ইত্যাদি | সাথে ডাল,ডিম,মাংশ যেকোনটি একটি খেতে পারেন অল্প বা পরিমিত পরিমানে| সকালের নাস্তাটি যেন সম্পূর্ণ খাবার হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখবেন| যেমন: শুধু শর্করা ( রুটি,ভাত ইত্যাদি) না খেয়ে, খাবারে যেন সব উপদান: শর্করা, আমিষ, ভিটামিন,মিনারেল, আঁশ ইত্যাদি থাকে তা লক্ষ্য রাখবেন| এছাড়া oats বা cornflakes দুধের সাথে খেতে পারেন সকালের নাস্তায়| উপরে উল্লেখিত নাস্তা গুলো অধিক আঁশ সম্দৃধ্হ, কম ক্যালরি যুক্ত| যা স্বাস্থ্যকর তো বটেই, ক্ষুধা কম লাগা ও ওজন নিয়ন্ত্রণ ও হ্জমেও সহায়ক |তাই আপনার সারাদিনের সবচেয়ে গুরুত্ব্য পূর্ণ খাবারটি খেয়ে নিজের শরীর টিকে বাঁচান এবং কর্মক্ষম থাকুন |
ফিটনেস ও স্বাস্থ্য বিষয়ে আরো জানতে ক্লিক করুন

Please Share:

Related posts

Leave a Comment