গর্ভবতী মায়ের মাড়ির যত্ন

গর্ভকালীন সময় হচ্ছে মায়ের জন্য অতি গুরুত্বপূর্ণ সময়। এ সময় মায়ের যত্ন ও সুস্থতার ওপর নির্ভর করে ভেতরের শিশুটির সুস্থতা ও বেড়ে ওঠা। সাধারণত অন্তঃসত্ত্বার প্রথম তিন মাসের দিকে মাড়ির প্রদাহ ‘প্রেগনেনসি জিনজিভাইটিস’ দেখা দিতে পারে। তাই এ সময়ে মাড়ির যত্ন অত্যন্ত প্রয়োজন। প্রেগনেনসি জিনজিভাইটিসের প্রধান কারণ হচ্ছে দাঁত ও মাড়িতে জমে থাকা খাবারের অংশ, যা পরে পাথর আকার ধারণ করে। গর্ভকালীন কিছু হরমোনের কারণে এই জিনজিভাইটিস দেখা দিতে পারে। প্রেগনেনসি জিনজিভাইটিসের লক্ষণগুলো:

১. মাড়ি দিয়ে রক্ত পড়া,
২. মাড়ির রং গাঢ় লাল হয়ে যাওয়া এবং
৩. দুই দাঁতের মাঝের অংশের মাড়ি ফুলে যাওয়া।

এ রোগ সাধারণত গর্ভকালীন শেষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই ভালো হয়ে যায়। প্রত্যেক গর্ভবতী মায়ের অন্তত দুবার নরম ব্রাশ দিয়ে দাঁত পরিষ্কার করতে হবে। দুই দাঁতের মাঝে জমে থাকা খাবার পরিষ্কার সুতা বা ডেন্টাল-ফ্লশ দিয়ে পরিষ্কার করতে হবে। প্রতিবার খাবারের পর ভালোভাবে কুলকুচো করতে হবে। গর্ভকালীন সময় শুরু হওয়ার আগে সম্ভব হলে একবার দাঁতের স্কেলিং ও পলিশিং করিয়ে নিন।

Please Share:

Related posts

Leave a Comment