“গোলাপী ফিতার গল্প” – ডা. মোহাম্মাদ মাসুমুল হক

অক্টোবর স্তন ক্যান্সার সচেতনতা মাস আর এই স্তন ক্যান্সারের প্রতীক গোলাপী রিবনএটা হয়তো অনেকেই জানি।কিন্তু এর পিছনের ইতিহাস জানা আছেএই গোলাপী ফিতার জন্ম কোথায়,কিভাবে,চলুন জেনে নেয়া যাক।

১৯৮৫ সালে American Cancer Society এবং Imperial Chemical Industries এর যৌথ উদ্যোগে প্রথমবারের মতো অক্টোবর মাসকে জাতীয় ব্রেস্ট ক্যান্সার সচেতনতা মাস হিসাবে ঘোষণা করেন। ব্রেস্ট ক্যান্সার নিয়ে সচেতনতা এবং প্রাথমিক পর্যায়ে সনাক্তকরণ এর উপর গুরুত্ব আরোপ করাই ছিলো এর উদ্দেশ্য।

ক্যালিফোর্নিয়ার এক বয়স্কা মহিলা Charlotte Haley ( উনার বোনমেয়ে এবং নাতনিকে এই ঘাতক ব্যাধীতে হারান) ব্রেস্ট ক্যান্সার গবেষণার জন্য অর্থ সংগ্রহের ও জনগণের দৃষ্টি আকর্ষণের উদ্দ্যেশে প্রথমবারের মতো পীচ্ রংয়ের রিবন ব্যাবহার করেন।

 ১৯৯১ সালে নিউইয়র্ক সিটিতে অনুষ্ঠিত ব্রেস্ট ক্যান্সার সার্ভাইবারদের নিয়ে আয়োজিত এক র‍্যালীতে অংশগ্রহণকারীদের মাঝে পিংক রিবন বিতরণ করে Susan.G.Komen Foundation নামে এক প্রতিষ্ঠাতান।

 এরপর ১৯৯৩ সালে The Breast Cancer Research Foundation এর উদ্যোগে গোলাপি রিবনকে ব্রেস্ট ক্যান্সার এর আন্তর্জাতিক প্রতীক হিসাবে ঘোষণা করা হয়।

 

লেখকঃ ডা. মোহাম্মাদ মাসুমুল হক

ক্যান্সার এওয়ারনেস ফাউন্ডেশন অফ বাংলাদেশ

Please Share:

Related posts

Leave a Comment