ফাস্ট ট্রাইমেস্টার বা প্রথম তিন মাস

কখন আপনি গর্ভধারনের জন্য সবচেয়ে বেশি তৈরি?

সাধারনত আপনার পরবর্তী প্রিয়ডের ১৪ দিন আগে আপনার গর্ভধারনের সম্ভাবনা সবচেয়ে বেশি। এই দিনে শরিরের তাপমাত্রা সবচেয়ে বেশি থাকে ডিম্বপাতের কারনে। প্রতিদিন সকালে বিছানা থেকে উঠার আগে আপনি থার্মোমিটার দিয়ে তাপমাত্রা দেখেও বুঝতে পারেন আপনার গর্ভধারনের সম্ভাবনা কেমন।

 

শুক্রাণূ ও কিছু কথা

প্রতি বীর্জপাতে একজন পুরুষ ২০০ মিলিয়ন থেকে ৫০০ মিলিয়ন শুক্রানু নির্গত করে থাকেন কিন্তু এদের মধ্যে মাত্র ১ টি শুক্রাণূ ডিম্বানুর সাথে মিলিত হতে পারে। শুক্রাণূর পরিমান কম থাকলে বা শুক্রানু পরিপক্ক না হলে গর্ভধারনে সমস্যা হতে পারে। ল্যাবরেটরিতে পরিক্ষার মাধ্যমে শুক্রাণূর পরিমান ও গুনগত মান নির্ধারণ সম্ভব।

 

ব্লাস্টোসিস্ট

 

নিষিক্তহবার ৫ দিনের দিকে ব্লাস্টোসিস্ট তৈরি হয়। এটা ভ্রুণ এর প্রাথমিক পর্যায় যা দুই প্রকার কোষ এর সমন্বয়ে তৈরি এবং এদের মাঝে থাকে তরল পূর্ণ একটি গহ্বর। বাহিরের দিকের কোষ গুলোকে বলে ট্রফেক্টোডার্ম যা পরে প্লাসেন্টা বা ভ্রুণ থলিতে পরিনত হয়। ভেতরের দিকের কোষ গুলো পরে ভ্রুণ এ পরিনত হয়।

 

স্পর্শকাতর স্তন

ডিম্বানু সিষিক্ত হবার সাথে সাথেই হরমনের প্রভাবে স্তন এর স্পর্শকাতরতা বেড়ে যায় কারন আপনার শরির প্রথম প্রিয়ড মিস হবার সাথে সাথেই ধরে নেয় যে আপানি শিঘ্রই স্তন পান করাতে যাচ্ছেন।

 

গর্ভাবস্থায় ঔষধ সেবন:

গর্ভাবস্থায় যেকোন ঔষধ খুবই সাবধানতার সাথে গ্রহন করতে হবে। সব ঔষধই যে শিশুর শরিরে প্রবাহিত হবে তা নয়, তবে দির্ঘমেয়াদি কোন সমস্যার কারনে কোন ঔষধ সেবন করে যেতে হলে আপনার গাইনেকলজিস্ট এর সাথে পরামর্শ করে তবেই গ্রহন করতে হবে।

 

Please Share:

Related posts

Leave a Comment