ইনগুইনাল হার্নিয়া পুরুষদের বেশি হয়

ইনগুইনাল হার্নিয়া যেকোনো বয়সের পুরুষ বা মহিলার হতে পারে, তবে শারীরিক গঠন ও ভিন্নতার কারণে পুরুষদের মধ্যেই এটি বেশি হয়। পুরুষ ভ্রূণের অন্ডকোষ দু’টো পেটের মধ্যেই তৈরি হয়, তারপর ইনগুইনাল ক্যানেলে দিয়ে অন্ডথলিতে নেমে আসে। জন্মের পরপরই ইনগুইনাল ক্যানেল প্রায় সম্পূর্ণ বন্ধ হয়ে যায়, কেবল শুক্রবাহী নালি যাতায়াতের জন্য কিছুটা ফাঁকা থাকে, তবে ফাঁকাটা এত বড় থাকে না যাতে অন্ডকোষ পেটে ফিরে যেতে পারে।

কখনো কখনো এই ক্যানেলে বা নালিপথ ঠিকমতো বন্ধ হয় না। মেয়ে শিশুর ক্ষেত্রে, জন্মের পরে ইনগুইনাল ক্যানেল বন্ধ না হওয়ার সম্ভাবনা খুবই কম। সত্যিকার অর্থে মহিলাদের ক্ষেত্রে ফেমোরাল হার্নিয়া বেশি হয়। ফেমোরাল হার্নিয়া হয় ফেমোরাল ক্যানেলে; এটা ইনগুইনাল ক্যানেলের নিকটবর্তী একটি পথ যেখান দিয়ে ফেমোরাল ধমনী, শিরা ও নার্ভ বা স্নায়ু চলে যায়।

বয়স বেশি হলে পেটের দেয়াল দুর্বল হলে যেতে পারে, বিশেষ করে আঘাত পেলে কিংবা পেটে কোনো অপারেশন হলে। পেটের দেয়ালের এই দুর্বলতাই হার্নিয়ার কারণ।

আপনার যদি পেটের দেয়ালে দুর্বলতা থাকে, তা হলেও পেটে অতিরিক্ত চাপ আপনার হার্নিয়া ঘটাতে পারে। এই চাপ মলত্যাগ বা প্রস্রাব করার সময় হতে পারে, ভারোত্তোলন থেকে হতে পারে, পেটে পানি জমলে হতে পারে এমনকি অতিরিক্ত ওজনের কারণে হতে পারে। এমনকি দীর্ঘস্থায়ী কাশি বা হাঁচির কারণে পেটের মাংসপেশি ছিঁড়ে যেতে পারে।

ঝুঁকিপূর্ণ বিষয়গুলো

আপনার ইনগুইনাল হার্নিয়া হওয়ার সম্ভাবনা খুবই বেশি যদি আপনি পুরুষ হোন। মহিলাদের চেয়ে পুরুষদের প্রায় ১০ গুণ বেশি ইনগুইনাল হার্নিয়া হয়। ইনগুইনাল হার্নিয়া হয়েছে এমন বেশিরভাগ নবজাতক ও শিশু হচ্ছে ছেলে।

অন্যান্য ঝুঁকিপূর্ণ বিষয় হলো

০ পারিবারিক ইতিহাস : যদি আপনার নিকটাত্মীয়ের যেমন মা-বাবার কারো ইনগুইনাল হার্নিয়া থাকে, তাহলে আপনার ইনগুইনাল হার্নিয়া হওয়ার ঝুঁকি বেশি।

০ কিছু নির্দিষ্ট অসুখ : যদি আপনার সিস্টিক ফাইব্রোসিস (জীবনের জন্য হুমকিস্বরূপ অসুখ যার কারণে ফুসফুসের মারাত্মক ক্ষতি হয়) থাকে এবং দীর্ঘস্থায়ী কাশি থাকে তাহলে আপনার ইনগুইনাল হার্নিয়া হওয়ার ঝুঁকি বেশি থাকবে।

০ দীর্ঘস্থায়ী কাশি : যদি ধূমপান করার কারণে আপনার দীর্ঘস্থায়ী কাশি থাকে তাহলে আপনার ইনগুইনাল হার্নিয়া হওয়ার ঝুঁকি বেশি থাকে।

০ দীর্ঘস্থায়ী কোষ্ঠকাঠিন্য : এক্ষেত্রে মলত্যাগের সময় খুব চাপ পড়ে- এটা ইনগুইনাল হার্নিয়ার একটি সাধারণ কারণ।

০ অতিরিক্ত ওজন : মাঝারি থেকে বেশি ওজন আপনার পেটে অতিরিক্ত চাপ দেয়, যার ফলে ইনগুইনাল হার্নিয়া হয়।

০ কিছু নির্দিষ্ট পেশা : দীর্ঘ সময় দাঁড়িয়ে থাকতে হয় এমন চাকরি অথবা অতিরিক্ত শারীরিক পরিশ্রমের কাজ আপনার ইনগুইনাল হার্নিয়ার ঝুঁকি বাড়ায়।

০ নির্দিষ্ট সময়ের আগে জন্ম : যেসব শিশু স্বাভাবিক জন্মগ্রহণের তারিখের আগেই ভূমিষ্ঠ হয় তাদের ইনগুইনাল হার্নিয়া বেশি হয়।

০ হার্নিয়ার ইতিহাস : যদি আপনার একবার ইনগুইনাল হার্নিয়া হয়, তাহলে আরেকবার- সাধারণত অন্য পাশে হার্নিয়া হওয়ার সম্ভাবনা খুবই বেশি থাকে।

ডা. মিজানুর রহমান কল্লোল
জেনারেল ও ল্যাপারোস্কপিক সার্জন এবং মূত্ররোগ বিশেষজ্ঞ।
চেম্বার : কমপ্যাথ লিমিটেড, ১৩৬ এলিফ্যান্ট রোড (বাটা সিগনাল ও হাতিরপুল বাজারের সংযোগ সড়কের মাঝামাঝি) ঢাকা। ফোন : ০১৭১৬২৮৮৮৫৫।
সূত্রঃ দৈনিক ইত্তেফাক, আগস্ট , ২০০৯

Please Share:

Related posts

Leave a Comment